डीएसओ की ओर से छात्र शहीद दिवस का पालन किया गया, स्कूल, कॉलेज खोलने व राष्ट्रीय शिक्षा नीति को रद्द करने की मांग

169
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

डीएसओ की ओर से आज छात्र शहीद दिवस का पालन किया गया ज्ञात हो कि सन 59 में खाद्य आंदोलन कर रहे लोगों पर तत्कालीन कांग्रेस सरकार मैं लाठी चार्ज किया था जिसमें कई लोग मारे गए थे. उक्त शहीदों की याद में आज मेदनीपुर शहर के विद्यासागर मूर्ति से लेकर रविंद्र ठाकुर की मूर्ति तक रैली निकाली गई व कोरोना विधि को मानते हुए स्कूल, कॉलेज खोलने व राष्ट्रीय शिक्षा नीति को रद्द करने सहित अन्य मांगें की गई.

Advertisement
Advertisement

ছাত্র শহীদ day observed  by dso
স্বাধিনতার 12 বছর পর1959 সালের 31শে আগষ্ট হাজার হাজার মানুষ খাদ্যের দাবিতে আন্দোলনে ফেটে পড়ে, এবং তৎকালীন কংগ্রেস সরকার তাদের ওপর নির্মমভাবে লাঠি পিটিয়ে প্রায় শতাধিক মানুষকে হত্যা করে। এই ঘটনার প্রতিবাদে পরের দিন 1লা সেপ্টেম্বর ছাত্ররা রাস্তায় নামে।আবারো ছাত্রদের ওপর গুলিবর্ষণ করে বহুজন ছাত্রকে হত্যা করে।
এই দিনটিকে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও *ছাত্র শহীদ দিবস* হিসেবে গোটা দেশ জুড়ে ছাত্র সংগঠন *AIDSOর* পক্ষ থেকে দিনটিকে পালন করা হয়।সারা রাজ্যের সঙ্গে সঙ্গে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা র মেদিনীপুর,বেলদা,সবংএদিনটি যথাযথ মর্যাদার সঙ্গে এবংছাত্র শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে শপথ গ্ৰহনের মধ্য দিয়ে পালন করা হয়। মেদিনীপুর শহরের বিদ্যাসাগর মূর্তির পাদদেশে থেকে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের মূর্তির পাদদেশ পর্যন্ত মিছিল ও সভার মধ্য দিয়ে দিনটি উদযাপন করা হয়। উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের জেলা সভাপতি বিশ্বরঞ্জন গিরি, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য সুজিত জানা, টুম্পা গোস্বামী ভাস্কর পাত্র, সন্দীপন জানা।

 

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

For Sending News, Photos & Any Queries Contact Us by Mobile or Whatsapp - 9434243363 //  Email us - raghusahu0gmail.com